Notice :
  1. সবাইকে স্বাগতম ইসলামিক স্টরি বিডি ডটকম এ

তারাবীর নামায বিশ রাকাত না আট রাকাত?


বিসমিল্লাহির রাহমানির রাহিম


তারাবির ফজিলত

হযরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু থেকে বর্ণিত তিনি বলেন রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এরশাদ করেন যে ব্যক্তি পুরোনো বিশ্বাস এবং সাওবের নিয়তে রোজা রাখে সকল আল্লাহ তায়ালা তার সমস্ত গুনাহ ক্ষমা করে দেন আর যে ব্যক্তি ঈমানের সাথে রমজানে তারাবির নামাজ আদায় করে তার জীবনের সকল গুনাহ মাফ করে দেওয়া হয় আর যে ব্যক্তি সাওবের আশায় শবে কদরের রাত্রে এবাদত বন্দেগী করে আল্লাহ তাআলা তার বিগত জীবনের সকল গুনাহ মাফ করে দেন।বুখারী

তারাবীর হুকুম

তারাবির নামাজ প্রাপ্ত বয়স্ক নারী-পুরুষ সকলের জন্য সুন্নতে মুয়াক্কাদা এবং পুরুষদের জন্য জামাতের সাথে তারাবি আদায় করা সুন্নতে মুয়াক্কাদা আলাল কিফায়াহ।যদি মহল্লার যেকোনো একটি মসজিদে জামাতের সাথে তারাবি অনুষ্ঠিত হয় তখন একাকী তারাবি আাদায়কারী ব্যাক্তি গুনাহগার হবে না। তবে জামাতের সহিত পড়লে যে সাওয়াব ওই সাওয়াব পাবে না।

তারাবীহ বিশ রাকাত

মাসাআলাঃ তারাবি রনামাজ বিশ রাকাত.আট রাকাত নয়। কেননা হযরত ওমর রাদিয়াল্লাহু এর যুগ থেকে চার ইমাম সহ আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের অগণিত ফক্বীহ ও মুহাদ্দিসগণ সমর্থন করে এসেছে। এবং যুগ যুগ ধরে মক্কা মদিনা সহ পৃথিবীর কোটি কোটি মানুষ তারাবিহ বিশ রাকাত আদায় করে আসছেন।এমন অবস্থায় অতীতের সিদ্ধান্তকে বাদ দিয়ে তারাবিহ আট রাকাত পড়া ইজমায়ে উন্মত তথা ঐক্যবদ্ধ সিদ্ধান্তের বিপরিত মনগড়া সিদ্ধান্ত।আত-তাহমীদ-৩/৫৮৮

হাদীস শরীফে এসেছে-
হযরত ইবনে আব্বাস রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু হতে বর্ণিত তিনি বলেন নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম রমজানে বিতির নামাজ ছাড়া বিশ রাকাত তারাবিহ পড়তেন।
দ্বিতীয় খলিফা হযরত ওমর রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু এর খেলাফত কালে মসজিদে নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর মধ্যে অনেকগুলো ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জামাতকে একত্রিত করে উবাই ইবনে কা’ব রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু এর ইমামতিতে বিশ রাকাত রাকাত তারাবির নামাজের হুকুম দিয়েছিলেন।

আরো বিস্তারিত জানতে ভিডিও টি দেখুন

তারাবীহ আট রাকাত নয়

হযরত ওমর রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু থেকে তারাবির ব্যাপারে আরো কিছু বর্ণনা পাওয়া যায়। তা হল সায়েব বিন ইয়াজিদ থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন হযরত ওমর রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু উবাই ইবনে কা’ব ও তামীমে দারী রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু উভয়কে এগার (১১) রাকাত তারাবীহ পড়াবার নির্দেশ দিয়েছিলেন।[মুয়াত্তা ইমাম মালেক-৪০]

তবে হযরত ওমর রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু থেকে বর্ণিত হাদিসের মধ্যে উসূলে হাদীস হাদীস শাস্ত্রের আইন অনুযায়ী প্রথম হাদীসটি প্রাধান্য পাবে!

Please Share This Post in Your Social Media

© 2020 islamicstorybd.com